ক’রো’নাকালে অভুক্ত মানুষের পেট ভরাতে মাত্র ১টাকায় খাওয়ার খাওয়াচ্ছেন এই মহান ব্যা’ক্তি


করোনা আবহে লক ডাউনের জেরে বহু মানবিক দৃষ্টান্ত সামনে এসেছে। লকডাউনের জেরে বাজারে জিনিস অগ্নিমূল্যের, এই বাজারে এক টাকায় খাবার দেওয়া আশ্চর্য্য কর ই বটে।

এক বৃদ্ধা এক টাকায় ইডলি বানিয়ে খাইয়েছে পথচলতি মানুষদের। সম্প্রতি দিল্লিতে সামনে এসেছে এক রেস্তোরার নাম যেখানে এক টাকায় খাবার দেওয়া হয় ভরপেট।

রেস্তোরাঁটির নাম শ্যাম রসুই। এটি প্রতিদিন দুপুর ১১ টা থেকে ১ টা পর্যন্ত খোলা থাকে এই দোকান।এক টাকার খাবার থালিতে ভাত, ডাল, সোয়াবিনের পোলাও, পনির সবই পাওয়া যায়। জানা গিয়েছে প্রতিদিন প্রায় 1,000 এরও বেশি মানুষ এসে খাবার নিয়ে যান আর আশেপাশের প্রায় হাজার খানেক রিক্সাওয়ালাদের রেস্তোরার কর্মীরাই খাবার পৌঁছে দেয়।

রেস্তোরার মালিকের কাছে এই ভাবনা শুরুর বিষয়ে জিগ্যেস করলে তিনি জানান,” এক আন্তর্জাতিক সমীক্ষা থেকে জানতে পারি এই বছরের শেষে সারা বিশ্বে ১৩০ মিলিয়নের বেশি মানুষ অভুক্ত থাকবে। এই তথ্য জানার পরই গরীব মানুষের কথা ভেবে তাদের পেট ভরানোর দ্বায়িত্ব নি।”

পারভিন বাবু আরও জানিয়েছেন যে, থালির দাম প্রথমে ১০ টাকা রাখা হয় কিন্তু তিনি দেখেন অনেকেরই ১০ টাকা দেবার সামর্থ্য নেই তাই তিনি থালির দাম 10 টাকা থেকে কমিয়ে ১ টাকা করেন। তিনি জানিয়েছেন তাকে এই কাজে অনেকেই সাহায্য করছেন।

যেমন এক বৃদ্ধা তার সম্পূর্ণ রেশন তাদের হাতে তুলে দিয়েছেন গরিব মানুষকে খাওয়ানোর জন্য। পারভীন বাবু চান যাতে আরো মানুষ এভাবেই তাদের সাহায্যে এগিয়ে আসে যাতে পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত এভাবেই গরিব মানুষদের মুখে তারা খাবার তুলে দিতে পারেন।